ডিমের কোন অংশ বেশি উপকারী—সাদা নাকি হলুদ?

সকালের নাশতায় ডিম একটি চমৎকার খাবার। পুষ্টিগুণে ভরপুর এ খাবার স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী। এটি প্রোটিন, ভিটামিন ও স্বাস্থ্যকর চর্বিতে ভরপুর।

সাধারণত সকালের নাশতায় ডিম সেদ্ধ, অর্ধ সেদ্ধ বা ওমলেট করে খাওয়া হয়ে থাকে। যেভাবেই খাওয়া হোক না কেন, ডিম শরীরের জন্য ভালো। একটি ভারসাম্যপূর্ণ খাদ্যতালিকা মেনে চলতে গেলে এটি কোনোভাবেই এড়িয়ে যাওয়া ঠিক নয়।

ডিম তো স্বাস্থ্যকর। তবে প্রশ্ন হলো, ডিমের কোন অংশটি বেশি স্বাস্থ্যকর—সাদা নাকি হলুদ অংশ?

ক্যালরি
ডিমের সাদা অংশ ও কুসুমের মধ্যে ক্যালরির বেশ তারতম্য রয়েছে। একটি বড় ডিমের কুসুমে প্রায় ৫৫ ক্যালরি থাকে, যেখানে সাদা অংশে থাকে ১৭ ক্যালরি।

কুসুম
ডিমের কুসুমের মধ্যে স্যাচুরেটেড ফ্যাট ও ডায়াটারি কোলেস্টেরল থাকার কারণে এটি অনেকেই এড়িয়ে যান। এগুলো দেহের কোলেস্টেরল বাড়ায় এবং হৃদরোগের ঝুঁকি তৈরি করে। তবে ডিমের কুসুমের মধ্যে রয়েছে বেশি পুষ্টি, এ সত্যটিকে কিন্তু কোনোভাবেই এড়িয়ে যাওয়া যাবে না।

ডিমের কুসুমের মধ্যে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ পুষ্টি। এর মধ্যে রয়েছে ভিটামিন বি৬, বি১২, এ, ডি, ই ও কে। এ ছাড়া আরো রয়েছে ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, আয়রন ও স্যালেনিয়াম।

ডিমের কুসুমের মধ্যে থাকা ক্যারোটিনয়েড দৃষ্টিশক্তি ভালো করে। এটি রেটিনাকেও সুরক্ষিত রাখে। ডিমের কুসুমের মধ্যে ওয়াটার সলিউবল (পানিতে দ্রবণীয়) একটি ভিটামিন রয়েছে। আর এর নাম কোলিন। এটি শরীরের কার্ডিওভাসকুলার কার্যক্রমকে ভালো রাখে।

ডিমের সাদা অংশ
ডিমের সাদা অংশ মূলত অ্যালবুমিন। এর মধ্যে কম ক্যালরি থাকার কারণে এবং এটি ফ্যাট ফ্রি হওয়ার কারণে বেশিরভাগ স্বাস্থ্যসচেতন মানুষ এ অংশটি খেতে পছন্দ করে। এটি শরীরকে স্বাস্থ্যকর প্রোটিন দেয়। এটি পেশি বাড়াতেও সহায়তা করে। এর মধ্যে থাকা পটাশিয়াম মিনারেল উচ্চ রক্তচাপ কমাতে সহায়ক। এ ছাড়া এর মধ্যে থাকা রিবোফ্ল্যাভিন চোখের ছানি ও মাইগ্রেনের কারণে হওয়া মাথাব্যথা প্রতিরোধে উপকারী।

কোনটি বেশি উপকারী?
ডিমের মধ্যে থাকা ৯৩ ভাগ আয়রনই রয়েছে কুসুমে। আর সাত ভাগ আয়রন রয়েছে সাদা অংশে। ৯০ ভাগ ক্যালসিয়াম রয়েছে কুসুমে। আসলে দুটো অংশই উপকারী। তবে পুষ্টির কথা বিবেচনায় আনা হলে ডিমের কুসুম কিন্তু বেশি উপাকারী। তাই ডিমের কুসুম ফেলে দেওয়ার আগে আরেকবার ভাবুন। সব ধরনের পুষ্টি পেতে চাইলে সম্পূর্ণ ডিমটিই খান।

আর যাঁরা কোলেস্টেরল নিয়ে ভাবছেন বা এর ঝুঁকিতে রয়েছেন, তাঁরা পরিমিতভাবে কুসুম খেতে পারেন বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

Share

Recent Posts

আমড়া খান, সুস্থ থাকুন

মৌসুম এখন আমড়ার। ভিটামিন সি, আয়রন, ক্যালসিয়ামে ভরপুর এ ফল নানা রোগ প্রতিরোধে সহায়ক। এর রয়েছে বিশেষ পুষ্টিগুণ। জানাচ্ছেন খাদ্য… Read More

September 11, 2022

চুইঝাল শুধু ঝালই নয়, আছে অন্য কিছু

চুইঝাল; এখন বলতে গেলে ট্রেন্ডিং মসলা। দক্ষিণাঞ্চল, বিশেষ করে খুলনায় চুইঝাল দিয়ে রান্না মাংসের কদর ব্যাপক। আর সেই হাওয়া এখন… Read More

September 11, 2022

শক্তির উৎস কাঁঠাল

কাঁঠাল বাংলাদেশের জাতীয় ফল। বাংলাদেশের সব স্থানেই কমবেশি কাঁঠাল পাওয়া যায়। বসন্ত ও গ্রীষ্মের প্রথমে কাঁচা অবস্থায় এবং গ্রীষ্ম ও… Read More

June 25, 2022

This website uses cookies.