রংধনু সালাদ খাওয়ার সঠিক সময় শীতকাল

প্রতিদিন রংধনু সালাদ খাওয়ার সঙ্গে বিভিন্ন রঙের ফল ও শাকসবজি থাকতে হয়। নানা উদ্ভিদে বিভিন্ন রঞ্জক বা ফাইটোনিউট্রিয়েন্টস থাকে, যা তাদের রঙের মধ্যে বিদ্যমান। বিভিন্ন রঙের ফল, সবজি, পাতা ও গাছ নির্দিষ্ট পুষ্টি ও সুস্বাস্থ্যর সঙ্গে যুক্ত। শাকসবজি সব সময় খাওয়া ভালো অভ্যাস। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, কোনো খারাপ দিক ছাড়াই নিয়মিত রঙিন শাকসবজি খেলে উপকার পাওয়া যায়। বিশেষ করে ডায়বেটিস, উচ্চ রক্তচাপ ও হার্টের সমস্যায় যারা আছেন তাদের ডায়েটে রংধনু সালাদ থাকতে পারে। কারণ এই সালাদে বিভিন্ন রংয়ের উপাদান স্বাস্থ্যের জন্য উপকারি। যেহেতু এতে ভিটামিন, খনিজ ও ফাইটোকেমিক্যালের একটি অ্যারে হয়; যা শরীরে নানা অসুখ-বিসুখের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে পারে। যেমন:

লাল রঙের সবজি

টমেটো। এর প্রধান ফাইটোনিউট্রিয়েন্টস হলো লাইকোপিন, ফোলেট, পটাশিয়াম, ভিটামিন সি, ভিটামিন কে-ওয়ান। এগুলো আপনার শরীরে লুকিয়ে থাকা ইনফ্লামেশন কমাবে। অ্যান্টি–অক্সিডেন্ট হৃৎস্বাস্থ্যের উপকার করবে, সূর্যরশ্মির কারণে হওয়া ত্বকের ক্ষতি কমাতে পারে এবং কিছু ক্ষেত্রে ক্যানসারের ঝুঁকি কমাতে পারে।

কমলা, হলুদ রঙের সবজি

গাজর, মিষ্টি আলু, হলুদ মরিচ, কুমড়া, শীতকালীন স্কোয়াশ ও ভুট্টা। এগুলোয় ফাইটোনিউট্রিয়েন্টস ও ক্যারোটিনয়েডের (বিটা ক্যারোটিন, আলফা ক্যারোটিন, বিটা ক্রিপ্টোক্সানথিন) সঙ্গে প্রধান ভিটামিন ও খনিজ, ফাইবার, ফোলেট, পটাশিয়াম, ভিটামিন এ, ভিটামিন সির মতো গুরুত্বপূর্ণ উপাদান থাকে, যা থেকে মিলবে অ্যান্টি–অক্সিডেন্ট। এটা বয়সের ছাপ কমাবে, হৃদ্‌যন্ত্র ভালো রাখবে, দৃষ্টিশক্তি ঠিক রাখবে, ক্যানসারের ঝুঁকি কমাবে, লিভার ভালো রাখবে, ঠান্ডা কমাবে এবং সেই সঙ্গে লিপিডের ভারসাম্য রক্ষা করবে।

সবুজ সবজি

শসা, কাঁচা পেঁপে, ব্রকলি, অ্যাসপারাগাস, সবুজ বাঁধাকপি, ব্রাসেলস স্প্রাউট, সবুজ গুল্ম, লেটুস, ধনেপাতা, পুদিনাপাতা। এতে প্রধান ফাইটোনিউট্রিয়েন্টস হলো ক্লোরোফিল আর ক্যারোটিনয়েড, ক্রুসিফেরাস, ইনডোলস, আইসোথিওসায়ানেটস, গ্লুকোসিনোলেটস। আরও থাকে ভিটামিন, মিনারেলে, ফাইবার, ফোলেট, ম্যাগনেশিয়াম, পটাশিয়াম, ভিটামিন এ ও ভিটামিন কে-ওয়ান। এসব উপাদান শরীরের সব ধরনের ইনফ্লামেশন কমাবে, ক্যানসার ও হৃদ্‌রোগের ঝুঁকি কমাবে, হজমজনিত সমস্যা দূর করবে, ঘুম ঠিক হবে এবং চেহারায় লাবণ্য ফেরাবে।

নীল ও বেগুনি সবজি

লাল–বেগুনি বাঁধাকপি, বেগুন। এতে ভিটামিন ও খনিজ হিসেবে আছে ফাইবার, ম্যাঙ্গানিজ, পটাশিয়াম, ভিটামিন বি–সিক্স, ভিটামিন সি ও ভিটামিন কে-ওয়ান। এসব উপাদান আপনার স্নায়বিক রোগের ঝুঁকি কমাবে, অস্থিতে শক্তি আসবে, মস্তিষ্কের কার্যকারিতা বাড়াবে, আপনার টাইপ–টু ডায়াবেটিসের ঝুঁকি কমাবে এবং ক্যানসারের ঝুঁকি কমাতে পারে।

কালচে লাল সবজি

বিট, শালগম, বরবটি। এগুলোর প্রধান ফাইটোনিউট্রিয়েন্টস হলো ভিটামিন ও খনিজ। আরও থাকে ফাইবার, ফোলেট, ম্যাগনেশিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ, পটাশিয়াম, ভিটামিন বি–সিক্স। এসব উপাদান উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকি কমাবে, হৃদ্‌যন্ত্র ভালো রাখবে, হৃৎস্পন্দনের হার ঠিক রাখবে, ক্যানসারের ঝুঁকি কমাবে, অক্সিজেন গ্রহণের ক্ষমতা বাড়াবে, যার কারণে শরীরে কোনো টিউমার হতে দেবে না।

সাদা ও বাদামি সবজি

ফুলকপি, রসুন, পেঁয়াজ, মাশরুম, মুলা ও সাদা আলু। এতে প্রধান ফাইটোনিউট্রিয়েন্টস ভিটামিন ও খনিজ, ফ্ল্যাভোনল, ফ্ল্যাভোনস, অ্যালিসিন, ফাইবার, ফোলেট, ম্যাগনেশিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ, পটাশিয়াম, ভিটামিন বি–সিক্স, ভিটামিন কে-ওয়ান থাকে, যা কোলন ক্যানসারের ঝুঁকি কমাবে, হজমশক্তি বাড়াবে, পেটের ক্রনিক সমস্যা থাকলেও দূর করবে।

প্রতিটি রং আলাদা করে ফাইটোকেমিকেল ও পুষ্টি দিয়ে থাকে, যার কারণে এক বাটি রংধনু সালাদে বিভিন্ন ধরনের সবজি থাকলে আপনি নানা ধরনের পুষ্টি, ভিটামিন, মিনারেল পাচ্ছেন, যা আপনার শরীরের বিভিন্ন সমস্যা দূর করতে সহায়ক।

সালাদ খাওয়ার উপযুক্ত সময় হচ্ছে প্রধান খাবারের আগে, যেন আপনার ভাত, রুটি, মাছ ও মাংস কম লাগে। যাঁরা কাঁচা সবজি খেতে পারবেন না, তাঁরা স্টিম করে খেতে পারবেন। তাতে ফাইটোনিউট্রিয়েন্টস কমে গেলেও উপকার পাওয়া যাবে।

ছবি: পেকজেলসডটকম

Share

Recent Posts

গোল্ডেন মিল্কশেকের উপকারিতা

গোল্ডেন মিল্ক, হলুদের দুধ নামেও পরিচিত। প্রাচীন ভারতবর্ষের একটি স্বাস্থ্যকর পানীয়, আজ যা পশ্চিমা সংস্কৃতিতে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। এই উজ্জ্বল… Read More

February 6, 2023

কুসুম গরম পানিতে শরীর-মন তাজা

শীতের সময় আমাদের শরীর রুক্ষ হয়ে ওঠে, যার দরুন পেটে সমস্যা, খিদে না লাগা থেকে শুরু করে ত্বকের অনেক সমস্যাই… Read More

January 16, 2023

লাল মুলার নানা উপকারিতা

মুলার উপকারিতা অনেক। বিশেষত লাল মুলার। নানাভাবেই এটা খাওয়া যায়। তবে সালাদ করে খাওয়াটা বেশি উপকারী। জানাচ্ছেন খাদ্য ও পথ্যবিশেষজ্ঞ আলমগীর… Read More

January 16, 2023

This website uses cookies.