সঠিক সময়ে ডিনার সারুন, ওজন ছাড়াও কমবে অনেক সমস্যা !!

দিনের প্রথম খাবার সঠিক সময়ে খাওয়া যেমন গুরুত্বপূর্ণ, তেমন শেষ খাবারও সময়মতো খাওয়া উচিত। রাতে আপনি কী খাচ্ছেন, কতটা খাচ্ছেন তার ওপর নির্ভর করে আপনার সুস্থতা, ওজন বাড়া বা কমা। যদি আপনি অধিক ক্যালোরিযুক্ত খাবার গ্রহণ করেন এবং শরীরচর্চার মাধ্যমে ক্যালোরি খরচ না করেন, তাহলে দিনের শেষে ওজন কিন্তু বেড়েই চলবে।

তাই আপনি কী খাচ্ছেন তার চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হল কোন সময়ে খাবারটা গ্রহণ করছেন। আমাদের শরীরের ভিতর কোনও ঘড়ি নেই, কিন্তু এর অভ্যন্তরীণ ছন্দ রয়েছে যেটা অনুযায়ী এটি শরীরের প্রধান কার্যগুলি নির্ধারণ করে। ‘সারকাডিয়ান রিদম’ বলা হয় যাকে। এর ফলে আমাদের শরীরের পারিপার্শ্বিক পরিবর্তন, হজম, ঘুম এবং অন্যান্য অ্যাক্টিভিটির সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারে।

মোট কথা হল, দেহের ওজন, মেটাবলিক রেগুলেশন, হার্টের স্বাস্থ্য এবং ঘুম নির্ভর করে আপনার খাওয়ার সময়ের ওপর। চিকিৎসক এবং পুষ্টিবিদরা সবসময় তাড়াতাড়ি ডিনার এবং তাড়াতাড়ি ঘুমানোর পরামর্শ দেন। তাদের মতে, রাতের খাবার সন্ধে সাতটার মধ্যে খেয়ে নেওয়া উচিত। তাড়াতাড়ি ডিনার করার উপকারিতা রয়েছে আরও। দেখে নিন সেগুলি।

১) ওজন কমাতে

তাড়াতাড়ি ডিনার করলে সবথেকে ভালো যেটা হবে সেটা হল ওজন কমবে। ওজন কমাতে আমরা কী না করি – এক্সারসাইজ, দৌড়ানো, পরিমিত খাওয়া। কিন্তু এসবের থেকে বেশি ভালো কাজ দেবে যদি সময়ে খান। পুষ্টিবিদরা বলেন, সকাল ৬টা থেকে সন্ধ্যে ৭টার মধ্যে খাওয়া শেষ করা উচিত। তাড়াতাড়ি রাতের খাবার খেয়ে নিলে আপনার দেহ খাবারগুলির সঠিক ব্যবহার করতে পারবে।

২) সুস্থ্যতা ঝুঁকি হ্রাস করে

দেরি করে রাতের খাবার খেলে, আপনি যে ক্যালোরি গ্রহণ করছেন সেটা আপনার শরীর কোনও কাজে লাগাতে পারবে না। ফলে মোটা হতে থাকবেন আপনি। ক্যালোরি খরচ না হলে সেটা ফ্যাট আকারে জমতে শুরু করবে। যার ফলে ওজন বাড়বে দ্রুত।

৩) তাড়াতাড়ি ডিনার করলে ক্যান্সারের ঝুঁকি কমবে

গবেষণায় দেখা গিয়েছে, রাতে ঘুমানোর অন্তত দুই ঘণ্টা আগে যারা ডিনার করেন তাদের ক্যান্সারের ঝুঁকি কমে যায়। পুরুষদের ক্ষেত্রে, ২৬ শতাংশ প্রস্টেট ক্যান্সারের ঝুঁকি কমে যায় তাড়াতাড়ি ডিনার করলে। মহিলাদের ক্ষেত্রে ১৬ শতাংশ স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি কমে যায়।

৪) এনার্জি বাড়ে, মুড ভালো থাকে

তাড়াতাড়ি ডিনার সারলে রক্তে শর্করার মাত্রা স্থিতিশীল করার জন্য অনেকটা সময় পেয়ে যাবে আপনার শরীর। যার ফলে আপনি কম ক্লান্ত বোধ করবেন এবং বিরক্ত ভাব কম আসবে আপনার মধ্যে। তাড়াতাড়ি ডিনার করলে ঘুমোতে যাওয়ার আগে পর্যন্ত আপনি এনার্জিতে ভরপুর থাকবেন। স্ন্যাকস খেয়েও কমবে ওজন! জেনে নিন কোন স্ন্যাকসগুলো খাবেন

৫) হজম ক্ষমতা বাড়ায়

ঘুমানোর ঠিক আগে ডিনার করলে খাবার পুরোপুরি হজম হয় না। যার ফলে অ্যাসিডিটি, গ্যাস, অম্বল, পেটের যন্ত্রণা দেখা দিতে পারে। এসবই বদহজমের কারণে হবে। ডিনার আর ঘুমের মাঝে যত বেশি সময় থাকবে তত আপনার পাচনতন্ত্র ভালো কাজ করবে।

৬) ভালো ঘুম

ভালো ঘুমের জন্য তাড়াতাড়ি ডিনার করা দরকার। ডিনারের পরই আপনি ঘুমিয়ে পড়লেও আপনার পাচনতন্ত্র কাজ করতে থাকে, যা আপনার REM বা গভীর ঘুমে প্রভাব ফেলবে। এর ফলে অস্থিরতা বা নিদ্রাহীনতা দেখা দেবে।

৭) হার্টের স্বাস্থ্য উন্নত করে

যত দেরিতে ডিনার করবেন, তত বেশি খাবার খাবেন আপনি। দেরিতে খেলে ক্যালোরি নষ্ট হয় না, এবং সেটা ট্রাইগ্লিসারাইডসে রূপান্তরিত হয়ে যায়। ট্রাইগ্লিসারাইডস হল এক ধরনের ফ্যাটি অ্যাসিড, যা হার্ট অ্যাটাক এবং স্ট্রোকের কারণ। তাড়াতাড়ি ডিনার করলে এই ফ্যাটি অ্যাসিড তৈরি হতে পারে না!

আলমগীর আলম
Share

Recent Posts

গোল্ডেন মিল্কশেকের উপকারিতা

গোল্ডেন মিল্ক, হলুদের দুধ নামেও পরিচিত। প্রাচীন ভারতবর্ষের একটি স্বাস্থ্যকর পানীয়, আজ যা পশ্চিমা সংস্কৃতিতে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। এই উজ্জ্বল… Read More

February 6, 2023

কুসুম গরম পানিতে শরীর-মন তাজা

শীতের সময় আমাদের শরীর রুক্ষ হয়ে ওঠে, যার দরুন পেটে সমস্যা, খিদে না লাগা থেকে শুরু করে ত্বকের অনেক সমস্যাই… Read More

January 16, 2023

লাল মুলার নানা উপকারিতা

মুলার উপকারিতা অনেক। বিশেষত লাল মুলার। নানাভাবেই এটা খাওয়া যায়। তবে সালাদ করে খাওয়াটা বেশি উপকারী। জানাচ্ছেন খাদ্য ও পথ্যবিশেষজ্ঞ আলমগীর… Read More

January 16, 2023

This website uses cookies.